চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিয়েসহ সব সামাজিক অনুষ্ঠান বন্ধ


তারেক আজিজ প্রকাশের সময় : ০৭/০৬/২০২১, ৯:১৩ অপরাহ্ণ /
চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিয়েসহ সব সামাজিক অনুষ্ঠান বন্ধ

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণ, মৃত্যু ও ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট রোধে চাঁপাইনবাবগঞ্জে ১৪ দিনের কঠোর লকডাউনের মেয়াদ শেষে তা আর বাড়ানো হয়নি। এর বিপরীতে দেওয়া হয়েছে ৭ দিনের বিশেষ বিধিনিষেধ। এর আওতায় সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত খোলা থাকবে সব ধরনের দোকানপাট ও শপিংমল।

তবে ক্রেতা-বিক্রেতাদের সকলকে মেনে চলতে হবে স্বাস্থ্যবিধি ও পরিধান করতে হবে মাস্ক। মোটরসাইকেলে চালক ছাড়া কেউ যাতায়াত করতে পারবে না। রিকশায় ১ জন ও অটোরিকশায় ২ জন যাত্রী নিয়ে চলাচল করা যাবে।

সোমবার (৭ জুন) সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে প্রেস ব্রিফিংয়ে জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ এ ঘোষণা দেন। বিশেষ বিধিনিষেধের আওতায় ১১ দফা নির্দেশনা দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

এ সময় জেলা প্রশাসক বলেন, বিশেষ বিধিনিষেধের আওতায় বিয়ে, জন্মদিন, পিকনিকসহ সব সামাজিক অনুষ্ঠান বন্ধ থাকবে। হোটেল রেস্তোরাঁ ও খাবার দোকান সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে।

তিনি আরও বলেন, তবে জেলার প্রধান অর্থকরী ফল আমের মৌসুমে আমচাষি, ব্যবসায়ী, আড়তদার ও রফতানিকারকদের যাতে কোনো ক্ষতি না হয়, সে লক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের আম ব্যবসায়ীর জেলায় প্রবেশে কোনো বাধা থাকবে না। তারা কোনোরকম বাধা ছাড়াই ব্যবসা করতে পারবে।

জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর, শিবগঞ্জ, গোমস্তাপুর, নাচোল ও ভোলাহাট উপজেলার বড় আমবাজার স্টেডিয়াম, কলেজ মাঠে স্থানান্তর করতে হবে। এটি বাস্তবায়ন করবে উপজেলা প্রশাসন। জেলার মধ্যে চলা বাসগুলো অর্ধেক সিটে যাত্রী নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে পারবে। তবে সকল আন্তঃজেলা গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। তবে জরুরি পরিষেবা চালু থাকবে।

ডিসি মঞ্জুরুল হাফিজ বলেন, আগামী ৭ দিন জেলার সব সাপ্তাহিক হাটবাজার বন্ধ থাকবে। কেউ জরুরি প্রয়োজনে বাইরে গেলে অব্যশই মাস্ক পরিধান করে যেতে হবে। এমনকি জুমাসহ পাঁচ ওয়াক্ত নামাজে ২০ জনের বেশি অংশ নিতে পারবে না। অন্যান্য উপাসনালয়েও সমানসংখ্যক মানুষ উপাসনা করতে পারবে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে আর উপস্থিত ছিলেন, জেলা সিভিল সার্জন ডা. জাহিদ নজরুল চৌধুরী, পুলিশ সুপার এএইচএম আব্দুর রকিব, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জাকিউল ইসলামসহ জেলায় কর্মরত ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকরা।

উল্লেখ্য, প্রথম দফায় গত ২৫ মে রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে ৩১ মে রাত ১২টা পর্যন্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জে কঠোর লকডাউন ঘোষণা করে জেলা প্রশাসন। দ্বিতীয়বার বাড়ানো কঠোর লকডাউন সোমবার (১ জুন) রাত ১২টা ১ মিনিটে শুরু হয়ে শেষ হয় ৭ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত।