গভীর রাতে সাংবাদিককে মোটরসাইকেল চাপা দিয়ে নারী বাইকারের হত্যা চেষ্টা


তারেক আজিজ প্রকাশের সময় : ০৫/০৮/২০২৩, ৩:২৮ অপরাহ্ণ /
গভীর রাতে সাংবাদিককে মোটরসাইকেল চাপা দিয়ে নারী বাইকারের হত্যা চেষ্টা

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি:

চাঁপাইনবাবগঞ্জে গভীর রাতে সোহান মাহমুদ নামে (২৬) নামে এক সাংবাদিককে মোটরসাইকেল চাপা দিয়ে হত্যা চেষ্টা চালিয়েছেন রানি (৩৪) নামে এক নারী বাইকার। এসময় গুরতর আহত হয়েছেন ওই সাংবাদিক। বুধবার (০২ আগস্ট) রাত সাড়ে ১১ টার দিকে সদর উপজেলার সরকারের মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার (০৩ আগস্ট) রাতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন এই সাংবাদিক। আহত সাংবাদিক সোহান মাহমুদ জাগো নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

জানা যায়, হত্যা চেষ্টা চালানো ওই দুই নারীর বাড়ি সদর উপজেলার বারঘরিয়া ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর বাঞ্জাপাড়া এলাকার বাসিন্দা ও একজন লেডি বাইকার। বাইকের পেছনে থাকা নারীর নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

আহত সাংবাদিক ও লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বুধবার রাতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শহর থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে গ্রামের বাড়ি শিবগঞ্জ যাচ্ছিলেন সাংবাদিক সোহান মাহমুদ। এসময় সরকারের মোড় এলাকায় পৌঁছালে পেছন থেকে হেলমেট পরে একটি মোটরসাইকেল নিয়ে সাংবাদিক সোহানকে ধাক্কা দিয়ে হত্যা চেষ্টা দুই নারী। এতে জ্ঞান হারিয়ে যায় সাংবাদিক সোহানের। তবে এসময় স্থানীয় লোকজন সাংবাদিক সোহানকে উদ্বার করে ও অবরুদ্ধ করে রাখে এই দুই নারীকে।

পরে এই দুই নারী তাদেরকে পরেরদিন বৃহস্পতিবার এর সমঝোতা করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। বৃহস্পতিবার (০৩ আগষ্ট) সন্ধ্যায় সাংবাদিক সোহান মাহমুদসহ আরও কয়েকজন সাংবাদিক নারী বাইকার রানীর ডাকে তার বাড়িতে গেলে এনিয়ে কথা বলতে রাজি হননি তিনি।

এবিষয়ে জানতে চাইলে সাংবাদিক সোহান মাহমুদ বলেন, আমি চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহর থেকে গ্রামের ভাষা শিবগঞ্জে যাচ্ছিলাম। সরকারের মোর এলাকায় পৌঁছালে হঠাৎ করে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে আমাকে একটি মোটরসাইকেলে হেলমেট পড়ে দুইজন নারী চাপা দিয়ে হত্যা চেষ্টা চালিয়েছে। আমার মনে হয়, আমার কোন একটি প্রতিপক্ষ তাদেরকে দিয়ে এই কাজটি করে থাকতে পারে বলে আমি সন্দেহ করছি।

তিনি আরও বলেন, মেরুদণ্ডে প্রচন্ড আঘাত পেয়েছি। এনিয়ে চিকিৎসা চলছে। এছাড়াও আমার মোটরসাইকেলের বিভিন্ন যন্ত্রাংশ ভেঙে গেছে। তাই পুলিশকে অনুরোধ করছি, এ হত্যাচেষ্টার সুষ্ঠ তদন্তের অনুরোধ প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার।

এবিষয়ে নারী বাইকার রানী ঘটনার জন্য নিজের দোষ স্বীকার করে বলেন, আমার গাড়িতে লেগে তার জখম হয়েছে ও গাড়ির বিভিন্ন জায়গা ভাংচুর হয়েছে এটা ঠিক। কিন্তু এনিয়ে আমি তার কাছে হাত জোর করে ক্ষমা চেয়েছি। কিন্তু এটা নিয়ে কোন সমঝোতা বা তাকে ক্ষতিপূরণ দিতে পারব না। তাতে তার যা ইচ্ছে হয় আমার বিরুদ্ধে করুক। এই ঘটনার সাথে অন্যকিছুর কোন সম্পর্ক নেই।

এ ঘটনায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানায় অভিযোগ দিতে গেলে থানার একাধিক কর্মকর্তা অভিযুক্ত নারী বাইকারের বিভিন্ন অপকর্মের কথা তুলে ধরে অভিযোগ দিতে নিরুৎসাহিত করেন। তারা জানান, ওই মহিলা খুবই ভয়ানক। তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিয়ে কোন লাভ হবে না।

এবিষয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন জানান, অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত সাপেক্ষে ওই নারী বাইকারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।