ইসলামপুর তদন্ত কেন্দ্র উদ্বোধনের অপেক্ষায়


তারেক আজিজ প্রকাশের সময় : ১১/০৯/২০২০, ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ /
ইসলামপুর তদন্ত কেন্দ্র উদ্বোধনের অপেক্ষায়

ফারুক আহমেদ চৌধুরী: চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ইসলামপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র নির্মাণ শেষ। চলছে সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ। ২ কোটি ৭৮ লাখ টাকা ব্যায়ে তিন তলাবিশিষ্ট এ ভবনটিতে স্থান সংকুলানের পর্যাপ্ত সুবিধা রয়েছে। ইসলামপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রটি এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায়।

ইসলামপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ভবন নির্মাণ কাজের ঠিকাদার বলছেন, চুক্তি মোতাবেক কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। বাইরের বাউন্ডারিসহ যেসব কাজ করা হচ্ছে তা চুক্তির বাইরে। শুধুমাত্র বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য কিছুটা দেরি হচ্ছে। তাছাড়া ভবন হস্তান্তরে কোন বাঁধা নেই।

গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২ কোটি ৭৮ লাখ ৯২ হাজার নয়শত টাকা চুক্তি মূল্যে তদন্ত কেন্দ্রের ভবন নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৮ সালের জুলাই মাসে। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান হোসেন এন্টারপ্রাইজ ভবণ নির্মানের কাজ করেছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নে ছয়রশিয়ায় এ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রেটি নির্মাণ করা হয়েছে।

জানা গেছে, এলাকাভিত্তিক আইন-শৃংখলা রক্ষা ও দ্রুত ও সঠিক অপরাধ তদন্ত কার্যক্রম সম্পন্ন করার লক্ষ্যে ২০১৮ সালের জুলাই মাসে ইসলামপুর তদন্ত কেন্দ্রের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের তৎকালিন পুলিশ সুপার বর্তমান রাজশাহী রেঞ্চের অ্যাডিশনাল ডিআইজি টি এম মোজাহিদুল ইসলাম।

ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের সময় টি এম মোজাহিদুল ইসলাম বলেন, আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি ও প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বর্তমান সরকার বদ্ধ পরিকর। সেই লক্ষে চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এলাকার মানুষের সুবিধার্ধে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র নির্মাণ করা হচ্ছে। যাতে এলাকাভিত্তিক আইন-শৃংখলা রক্ষা ও দ্রুত সঠিক অপরাধ তদন্ত কার্যক্রম সম্পন্ন করা যায়।

এ প্রসঙ্গে চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুলিশ সুপার এএইচএম আবদুর রকিব জানান, ইসলামপুর তদন্তকেন্দ্রটি শীঘ্রয় উদ্বোধন করা হবে। যেখানে ইনচার্জ হিসেবে থাকবেন একজন পুলিশ পরিদর্শক। এবং দুই থেকে তিন জন সাব-ইন্সপেক্টরসহ কমপক্ষে ৩০ জন পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে পোস্টিং দেয়া হবে। এতে অপরাধের খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে যেতে সক্ষম হবে। ফলে প্রত্যান্ত অঞ্চলেও অপরাধ কমে আসবে।