অর্ধশতাধিক ককটেল বিষ্ফোরণে উত্তপ্ত সন্ত্রাসের জনপদখ্যাত গ্রাম মর্দনা


তারেক আজিজ প্রকাশের সময় : ২৪/০৩/২০২১, ৭:৩১ অপরাহ্ণ /
অর্ধশতাধিক ককটেল বিষ্ফোরণে উত্তপ্ত সন্ত্রাসের জনপদখ্যাত গ্রাম মর্দনা
চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ আগামী ৩১ মার্চ স্থগিত হওয়া শিবগঞ্জ পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বর্তমান কাউন্সিলর ও আসন্ন নির্বাচনে কাউন্সিলর পদপ্রার্থী খাইরুল আলম জেম চাঁপাইনবাবগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপারসহ প্রতিপক্ষ গ্রুপের কতিপয় ব্যক্তিকে নির্বাচন সুষ্ঠ না হবার জন্য দায়ী করে একটি অভিযোগ দেন নির্বাচন কমিশন বরাবর। এসময় তিনি নিজের ও তার সমর্থকদের জানমালের নিরাপত্তাহীনতার জন্যেও প্রতিপক্ষকে দায়ী করেন। অভিযোগ দেয়ার পরের দিন আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে সন্ত্রাসের জনপদখ্যাত মর্দানা গ্রাম। মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত অন্তত ৭০টি ককটেল বিস্ফোরণ হয়েছে। এতে কোন হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও আতঙ্ক বিরাজ করছে ওই গ্রামটিতে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে পাশের বিভিন্ন উপজেলা থেকে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। শিবগঞ্জ পৌরসভার ০৯নং ওয়ার্ডের মরদানা গ্রামে বুধবার দুপুরে পুলিশের টহল
লক্ষ্য করা গেছে। গ্রামের রাস্তাঘাট ফাঁকা এবং অনেকটায় পুরুষশূন্য হয়ে পড়েছে।
নাম প্রকাশ না করা শর্তে স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা সূত্রে জানা যায়, গেল এক বছর আগে পালিয়ে থাকা অর্ধশত মানুষ নিজ গ্রাম মর্দানায় প্রবেশ করলে সন্ধার দিকে উটপাখি প্রতীকের প্রার্থী গোলাম আজমের সমর্থকরা তাদের উপর ধাওয়া করে। এসময় উভয় পক্ষের সমর্থকরা ককটেল ফাটিয়ে ত্রাসের সৃষ্টি করে। পরে পালিয়ে থাকা লোকজন উটপাখি প্রতীকের সমর্থকদের গ্রাম থেকে বিতাড়িত করে দেয়। এসব ঘটনায় একপক্ষ অপর পক্ষকে দায়ী করছে। উটপাখি প্রতীকের প্রার্থী
গোলাম আজম জানান, প্রতিপক্ষ পানির বোতলের প্রার্থী খাইরুল আলম জেমের বেশ কয়েকজন সমর্থক ককটেল ফটিয়ে এলাকায় বিশৃংখলা সৃষ্টির চেষ্টা করে। প্রতিপক্ষ পানির বোতলের প্রার্থী ও বর্তমান কাউন্সিলর খাইরুল আলম জেম অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমাকে নির্বাচন থেকে দুরে রাখতে একটি পক্ষ হামলা ও ককটেলবাজি করে আমার উপর দায় চাপানোর চেষ্টা করছে। আমি বেশ কিছুদিন যাবৎ অসুস্থ হয়ে বাড়িতেই রয়েছি। এসময় তিনি সুষ্ঠ নির্বাচনের জন্য প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন।
এবিষয়ে শিবগঞ্জ থানার ওসি ফরিদ হোসেন জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। সেখানে বিপুল পরিমান পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বোমাবাজির ঘটনায় এখন
পর্যন্ত (বুধবার সন্ধ্যা) থানায় কোন মামলা হয়নি।
উল্লেখ্য, বর্তমান কাউন্সিলর খাইরুল আলম জেম নিজের পরিবার, সমর্থক, ভোটার ও গ্রামবাসীর জান-মালের নিরাপত্তা চেয়ে নির্বাচন কমিশন বরাবর সোমবার (২২ মার্চ) একটি পত্র দিয়েছেন।
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com